০২:০৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইয়েমেনে বাড়লো যুদ্ধবিরতির মেয়াদ; স্বাগত ভারতের

ইয়েমেন সরকার এবং হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে বর্তমান যুদ্ধবিরতি আরও দুই মাসের জন্য পুনর্নবীকরণের চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে ভারত। শুক্রবার, ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর জানিয়েছে, “আমরা ইয়েমেনে সংঘাতরত পক্ষগুলোর মধ্যে বর্তমান যুদ্ধবিরতি আরও দুই মাসের জন্য বাড়ানোর বিষয়টি স্বাগত জানাই।”

গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে ভারতীয় পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী বলেন, “আমরা অঞ্চলটির সামগ্রিক পরিস্থিতির উন্নয়ন, বিশেষত গত দুই মাসে যুদ্ধবিরতি চলাকালীন ইয়েমেনে সহিংসতা হ্রাসের পাশাপাশি সংঘাতের পক্ষগুলোর মধ্যে জাতিসংঘের পৃষ্ঠপোষকতায় প্রথম মুখোমুখি বৈঠকে যারপরনাই খুশি হয়েছি।”

তিনি আরও বলেন, “আমরা আশা করি এই উন্নয়ন সংঘাতের অবসান এবং ইয়েমেন জুড়ে শান্তি, নিরাপত্তা এবং স্থিতিশীলতা পুনরুদ্ধারের জন্য দলগুলোর মধ্যে আরও আলোচনার পথ প্রসারণ করবে।”

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ইয়েমেনে সরকার ও হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন ইয়েমেনে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত হ্যান্স গ্রুন্ডবার্গ।

উল্লেখ্য, ২০১৪ থেকে ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধ চলছে। সেই বছর হুতি রাজধানী সানা সহ ইয়েমেনের উত্তরের অংশ দখল করে। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে স্বীকৃত সরকার দক্ষিণ ইয়েমেনে চলে যেতে বাধ্য হয়। ২০১৫ সাল থেকে সৌদির নেতৃত্বাধীন জোট হুতির সঙ্গে লড়াই করছে। তারপর থেকেই ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন দিয়ে সৌদিতে বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুর উপর আক্রমণ চালায় হুতি।

এই সংঘাতে আজ পর্যন্ত প্রায় দেড় লাখ মানুষ নিহত হয়েছেন। একই সাথে দেশজুড়ে দুর্ভিক্ষ সৃষ্টির মূল নিয়ামক হিসেবে কাজ করেছে এই অন্তঃর্দ্বন্দ্ব। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ইয়েমেনে বাড়লো যুদ্ধবিরতির মেয়াদ; স্বাগত ভারতের

প্রকাশ: ০৬:১৯:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ জুন ২০২২

ইয়েমেন সরকার এবং হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে বর্তমান যুদ্ধবিরতি আরও দুই মাসের জন্য পুনর্নবীকরণের চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে ভারত। শুক্রবার, ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর জানিয়েছে, “আমরা ইয়েমেনে সংঘাতরত পক্ষগুলোর মধ্যে বর্তমান যুদ্ধবিরতি আরও দুই মাসের জন্য বাড়ানোর বিষয়টি স্বাগত জানাই।”

গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে ভারতীয় পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী বলেন, “আমরা অঞ্চলটির সামগ্রিক পরিস্থিতির উন্নয়ন, বিশেষত গত দুই মাসে যুদ্ধবিরতি চলাকালীন ইয়েমেনে সহিংসতা হ্রাসের পাশাপাশি সংঘাতের পক্ষগুলোর মধ্যে জাতিসংঘের পৃষ্ঠপোষকতায় প্রথম মুখোমুখি বৈঠকে যারপরনাই খুশি হয়েছি।”

তিনি আরও বলেন, “আমরা আশা করি এই উন্নয়ন সংঘাতের অবসান এবং ইয়েমেন জুড়ে শান্তি, নিরাপত্তা এবং স্থিতিশীলতা পুনরুদ্ধারের জন্য দলগুলোর মধ্যে আরও আলোচনার পথ প্রসারণ করবে।”

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ইয়েমেনে সরকার ও হুথি বিদ্রোহীদের মধ্যে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন ইয়েমেনে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত হ্যান্স গ্রুন্ডবার্গ।

উল্লেখ্য, ২০১৪ থেকে ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধ চলছে। সেই বছর হুতি রাজধানী সানা সহ ইয়েমেনের উত্তরের অংশ দখল করে। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে স্বীকৃত সরকার দক্ষিণ ইয়েমেনে চলে যেতে বাধ্য হয়। ২০১৫ সাল থেকে সৌদির নেতৃত্বাধীন জোট হুতির সঙ্গে লড়াই করছে। তারপর থেকেই ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন দিয়ে সৌদিতে বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুর উপর আক্রমণ চালায় হুতি।

এই সংঘাতে আজ পর্যন্ত প্রায় দেড় লাখ মানুষ নিহত হয়েছেন। একই সাথে দেশজুড়ে দুর্ভিক্ষ সৃষ্টির মূল নিয়ামক হিসেবে কাজ করেছে এই অন্তঃর্দ্বন্দ্ব। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক