০১:১২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিরূপ মন্তব্যের জন্য পাক প্রধানমন্ত্রীকে ভারতের কটাক্ষ

সংখ্যালঘুদের অধিকার নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মন টুইট করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। এবার তার প্রত্যুত্তরে মুখ খুললো ভারত। ধারাবাহিকভাবে সংখ্যালঘু অধিকারের লঙ্ঘণকারী পাকিস্তান, এই মন্তব্য করে শাহবাজকে পাল্টা জবাব ভারতের।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ এবং তার বিদেশ মন্ত্রকের করা টুইটের উত্তরে ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী জানিয়েছেন, ‘আমরা পাকিস্তানের মন্তব্যগুলো নজরে রেখেছি।’ এই মন্তব্য করে তিনি জানান, ধারাবাহিকভাবে সংখ্যালঘুদের অধিকার লঙ্ঘণকারী পাকিস্তানের অন্য দেশের সংখ্যালঘুদের অবস্থা নিয়ে মন্তব্য কারুরই ক্ষতি করবে না। হিন্দু, শিখ, খ্রিস্টান এই সমস্ত সংখ্যালঘুদের যেভাবে পাকিস্তান অত্যাচার করেছে, তা গোটা বিশ্বই জানে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী টুইট করে জানান, মহানবী (সাঃ)-র বিরুদ্ধে বিজেপি নেতারা যা বলেছেন, তার তীব্র নিন্দা করছি। মোদীর নেতৃত্বাধীন ভারতে ধর্মীয় স্বাধীনতাকে নষ্ট করা হচ্ছে। মহানবী (সাঃ)-র জন্য সব মুসলিম নিজের জীবন দিয়ে দিতে পারে।

সে প্রসঙ্গেই আজ জবাব দিলো ভারত। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী বলেছেন, “যে দেশে সংখ্যালঘু অধিকার বলে কিছু নেই, সেখানকার প্রধানমন্ত্রী অযৌক্তিক, অর্থহীন অভিযোগ করেছেন।”

এছাড়া, ওআইসির অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাগচী বলেন, ভারত সরকার ওআইসি-র অযাচিত ও সংকীর্ণ মানসিকতার বিবৃতি খারিজ করছে। ভারত সরকার সব ধর্মকে সর্বোচ্চ শ্রদ্ধা জানায়। কিছু ব্যক্তি ধর্মীয় ব্যক্তিত্বদের সম্পর্কে আপত্তিকর টুইট ও মন্তব্য করেছে। এটা কোনোভাবে ভারত সরকারের মত নয়। সংশ্লিষ্ট সংগঠন ওই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে। ওআইসি সচিবালয় আবার উদ্দেশ্যমূলকভাবে মন্তব্য করেছে। এটা মেনে নেয়া যায় না। এটা তাদের বিভাজনের কর্মসূচিকেই সামনে আনছে। আমরা তাদের কাছে আবেদন জানাই, এরকম সাম্প্রদায়িক মন্তব্য তারা যেন না করে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

 

ট্যাগ:

বিরূপ মন্তব্যের জন্য পাক প্রধানমন্ত্রীকে ভারতের কটাক্ষ

প্রকাশ: ০৭:৪৮:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ জুন ২০২২

সংখ্যালঘুদের অধিকার নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মন টুইট করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। এবার তার প্রত্যুত্তরে মুখ খুললো ভারত। ধারাবাহিকভাবে সংখ্যালঘু অধিকারের লঙ্ঘণকারী পাকিস্তান, এই মন্তব্য করে শাহবাজকে পাল্টা জবাব ভারতের।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ এবং তার বিদেশ মন্ত্রকের করা টুইটের উত্তরে ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী জানিয়েছেন, ‘আমরা পাকিস্তানের মন্তব্যগুলো নজরে রেখেছি।’ এই মন্তব্য করে তিনি জানান, ধারাবাহিকভাবে সংখ্যালঘুদের অধিকার লঙ্ঘণকারী পাকিস্তানের অন্য দেশের সংখ্যালঘুদের অবস্থা নিয়ে মন্তব্য কারুরই ক্ষতি করবে না। হিন্দু, শিখ, খ্রিস্টান এই সমস্ত সংখ্যালঘুদের যেভাবে পাকিস্তান অত্যাচার করেছে, তা গোটা বিশ্বই জানে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী টুইট করে জানান, মহানবী (সাঃ)-র বিরুদ্ধে বিজেপি নেতারা যা বলেছেন, তার তীব্র নিন্দা করছি। মোদীর নেতৃত্বাধীন ভারতে ধর্মীয় স্বাধীনতাকে নষ্ট করা হচ্ছে। মহানবী (সাঃ)-র জন্য সব মুসলিম নিজের জীবন দিয়ে দিতে পারে।

সে প্রসঙ্গেই আজ জবাব দিলো ভারত। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী বলেছেন, “যে দেশে সংখ্যালঘু অধিকার বলে কিছু নেই, সেখানকার প্রধানমন্ত্রী অযৌক্তিক, অর্থহীন অভিযোগ করেছেন।”

এছাড়া, ওআইসির অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাগচী বলেন, ভারত সরকার ওআইসি-র অযাচিত ও সংকীর্ণ মানসিকতার বিবৃতি খারিজ করছে। ভারত সরকার সব ধর্মকে সর্বোচ্চ শ্রদ্ধা জানায়। কিছু ব্যক্তি ধর্মীয় ব্যক্তিত্বদের সম্পর্কে আপত্তিকর টুইট ও মন্তব্য করেছে। এটা কোনোভাবে ভারত সরকারের মত নয়। সংশ্লিষ্ট সংগঠন ওই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে। ওআইসি সচিবালয় আবার উদ্দেশ্যমূলকভাবে মন্তব্য করেছে। এটা মেনে নেয়া যায় না। এটা তাদের বিভাজনের কর্মসূচিকেই সামনে আনছে। আমরা তাদের কাছে আবেদন জানাই, এরকম সাম্প্রদায়িক মন্তব্য তারা যেন না করে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক