১২:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রবাসীরাই ভারত-কাতার সম্পর্কের সেতুবন্ধন

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার সফরে গিয়েছেন ভারতের উপরাষ্ট্রপতি এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু। সোমবার (৬ জুন) নাইডুকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ খালিদ বিন আবদুল আজিজ আল থানি। প্রথম সাক্ষাতেই ভারত-কাতার স্টার্টআপ ব্রিজের শুভারম্ভ হয়।

ভারতের বিদেশ সচিব অরিন্দম বাগচী এক টুইটবার্তায় জানিয়েছেন, সাক্ষাৎকালে ভারত ও কাতারের নেতৃবৃন্দ দিল্লি ও দোহার মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা করেন। এসময় বাণিজ্য, বিনিয়োগ, অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা সহযোগিতা নিয়েও আলোচনা করেন দু দেশের শীর্ষ নেতারা।

বৈঠকের পর উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, “২০২০ সালের থেকে ২০২২ সালে ভারতে কাতারের বিনিয়োগ প্রায় পাঁচ গুণ বেড়েছে।” এদিকে, দোহায় পৌঁছানোর পর ভারতীয় কমিউনিটির পক্ষ থেকে উপরাষ্ট্রপতি নাইডুকে অভ্যর্থনা জানানো হয়। তিন দেশে সফরের অংশ হিসেবে এর আগে আফ্রিকার দেশ সেনেগাল ও গ্যাবন সফর সম্পন্ন করেছেন তিনি।

এই দুটি দেশে সফরের সময় ভারত গ্যাবনের সঙ্গে দুটি এবং সেনেগালের সঙ্গে তিনটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে। যা এই দেশ দুটির সঙ্গে ভারতের উষ্ণ ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে।

সেনেগাল সফরের সময় ভারতকে বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র এবং সেনেগালকে আফ্রিকার অন্যতম স্থিতিশীল এবং মডেল গণতন্ত্র হিসাবে বর্ণনা করেছেন নাইডু।

উল্লেখ্য, কাতারে প্রায় ৭৫০০০০ থেকেও বেশি ভারতীয় বসবাস করে। ভারতীয় এবং কাতারের মধ্যে এক অদ্ভুত অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক সুসম্পর্ক বজায় রয়েছে। এবং ভবিষ্যতে তা আরও সুদূরপ্রসারী হবে।

কাতার সফরে ভারতের উপরাষ্ট্রপতি নাইডুর সঙ্গে রয়েছেন- দেশটির স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. ভারতী প্রবীণ পাওয়ার, সংসদ সদস্য সুশীল কুমার মোদী, সংসদ সদস্য বিজয় পাল সিং তোমর ও পি. রবীন্দ্রনাথ। এ ছাড়া আরও রয়েছেন- ভাইস প্রেসিডেন্টের সচিবালয় এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

 

ট্যাগ:

প্রবাসীরাই ভারত-কাতার সম্পর্কের সেতুবন্ধন

প্রকাশ: ০৭:৫৭:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ জুন ২০২২

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার সফরে গিয়েছেন ভারতের উপরাষ্ট্রপতি এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু। সোমবার (৬ জুন) নাইডুকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ খালিদ বিন আবদুল আজিজ আল থানি। প্রথম সাক্ষাতেই ভারত-কাতার স্টার্টআপ ব্রিজের শুভারম্ভ হয়।

ভারতের বিদেশ সচিব অরিন্দম বাগচী এক টুইটবার্তায় জানিয়েছেন, সাক্ষাৎকালে ভারত ও কাতারের নেতৃবৃন্দ দিল্লি ও দোহার মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা করেন। এসময় বাণিজ্য, বিনিয়োগ, অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা সহযোগিতা নিয়েও আলোচনা করেন দু দেশের শীর্ষ নেতারা।

বৈঠকের পর উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, “২০২০ সালের থেকে ২০২২ সালে ভারতে কাতারের বিনিয়োগ প্রায় পাঁচ গুণ বেড়েছে।” এদিকে, দোহায় পৌঁছানোর পর ভারতীয় কমিউনিটির পক্ষ থেকে উপরাষ্ট্রপতি নাইডুকে অভ্যর্থনা জানানো হয়। তিন দেশে সফরের অংশ হিসেবে এর আগে আফ্রিকার দেশ সেনেগাল ও গ্যাবন সফর সম্পন্ন করেছেন তিনি।

এই দুটি দেশে সফরের সময় ভারত গ্যাবনের সঙ্গে দুটি এবং সেনেগালের সঙ্গে তিনটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে। যা এই দেশ দুটির সঙ্গে ভারতের উষ্ণ ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে।

সেনেগাল সফরের সময় ভারতকে বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র এবং সেনেগালকে আফ্রিকার অন্যতম স্থিতিশীল এবং মডেল গণতন্ত্র হিসাবে বর্ণনা করেছেন নাইডু।

উল্লেখ্য, কাতারে প্রায় ৭৫০০০০ থেকেও বেশি ভারতীয় বসবাস করে। ভারতীয় এবং কাতারের মধ্যে এক অদ্ভুত অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক সুসম্পর্ক বজায় রয়েছে। এবং ভবিষ্যতে তা আরও সুদূরপ্রসারী হবে।

কাতার সফরে ভারতের উপরাষ্ট্রপতি নাইডুর সঙ্গে রয়েছেন- দেশটির স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. ভারতী প্রবীণ পাওয়ার, সংসদ সদস্য সুশীল কুমার মোদী, সংসদ সদস্য বিজয় পাল সিং তোমর ও পি. রবীন্দ্রনাথ। এ ছাড়া আরও রয়েছেন- ভাইস প্রেসিডেন্টের সচিবালয় এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক