০৮:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেন যুদ্ধের দ্রুত অবসান চায় ভারত

আলোচনার মাধ্যমে ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানের আহ্বান জানিয়েছে রাশিয়ার মিত্র চীন ও ভারত। শনিবার, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে ইউক্রেন সংঘাত অবসানে জোরালোভাবে আহ্বান জানিয়েছেন দুদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

চলমান সংকট ছড়িয়ে পড়া ঠেকানো, উন্নয়নশীল দেশগুলোকে প্রভাবিত না করতে শনিবার রাশিয়া ও ইউক্রেনের প্রতি আহ্বান জানান চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। বলেন, ইউক্রেন সংকট শান্তিপূর্ণ সমাধানে সব ধরনের প্রচেষ্টাকে সমর্থন করে চীন।

রাশিয়া-ইউক্রেনের বর্তমান সংকটে উদ্বেগ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, সবপক্ষের বৈধ নিরাপত্তার উদ্বেগকে প্রাধান্যের পাশাপাশি টেকসই সমাধান করা উচিত।

চলতি মাসের শুরুর দিকে উজবেকিস্তানে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে চীনা প্রেসিডেন্টের মুখোমুখি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তখন ইউক্রেন নিয়ে পুতিনের কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেন শি।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক থাকা সত্ত্বেও রাশিয়ার সঙ্গে কৌশলগত সম্পর্ক ধরে রেখেছে ভারত। মস্কোর কাছ থেকে অস্ত্র ও জ্বালানি ক্রয় করেছে দিল্লি। এ নিয়ে অবশ্য ওয়াশিংটনের সঙ্গে টানাপোড়েনও সৃষ্টি হয় মোদি সরকারের।

একইদিন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর বলেন, ইউক্রেন পরিস্থিতি প্রতিনিয়ত উত্তপ্ত হচ্ছে। এ নিয়ে আমাদের প্রায় সময় জিজ্ঞাসা করা হয়, আমরা কার পক্ষে আছি। আমরা প্রতিবারই সোজা ও সততার সঙ্গে উত্তর দিয়ে আসছি, ভারত শান্তির পক্ষে আছে এবং অটল থাকবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা এই অবস্থানে এখনও রয়েছি, যুদ্ধ শেষ করার একমাত্র পথ হলো আলোচনা। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ইউক্রেন যুদ্ধের দ্রুত অবসান চায় ভারত

প্রকাশ: ০৬:০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

আলোচনার মাধ্যমে ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানের আহ্বান জানিয়েছে রাশিয়ার মিত্র চীন ও ভারত। শনিবার, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে ইউক্রেন সংঘাত অবসানে জোরালোভাবে আহ্বান জানিয়েছেন দুদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

চলমান সংকট ছড়িয়ে পড়া ঠেকানো, উন্নয়নশীল দেশগুলোকে প্রভাবিত না করতে শনিবার রাশিয়া ও ইউক্রেনের প্রতি আহ্বান জানান চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। বলেন, ইউক্রেন সংকট শান্তিপূর্ণ সমাধানে সব ধরনের প্রচেষ্টাকে সমর্থন করে চীন।

রাশিয়া-ইউক্রেনের বর্তমান সংকটে উদ্বেগ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, সবপক্ষের বৈধ নিরাপত্তার উদ্বেগকে প্রাধান্যের পাশাপাশি টেকসই সমাধান করা উচিত।

চলতি মাসের শুরুর দিকে উজবেকিস্তানে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে চীনা প্রেসিডেন্টের মুখোমুখি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তখন ইউক্রেন নিয়ে পুতিনের কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেন শি।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক থাকা সত্ত্বেও রাশিয়ার সঙ্গে কৌশলগত সম্পর্ক ধরে রেখেছে ভারত। মস্কোর কাছ থেকে অস্ত্র ও জ্বালানি ক্রয় করেছে দিল্লি। এ নিয়ে অবশ্য ওয়াশিংটনের সঙ্গে টানাপোড়েনও সৃষ্টি হয় মোদি সরকারের।

একইদিন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর বলেন, ইউক্রেন পরিস্থিতি প্রতিনিয়ত উত্তপ্ত হচ্ছে। এ নিয়ে আমাদের প্রায় সময় জিজ্ঞাসা করা হয়, আমরা কার পক্ষে আছি। আমরা প্রতিবারই সোজা ও সততার সঙ্গে উত্তর দিয়ে আসছি, ভারত শান্তির পক্ষে আছে এবং অটল থাকবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা এই অবস্থানে এখনও রয়েছি, যুদ্ধ শেষ করার একমাত্র পথ হলো আলোচনা। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক