১০:৪৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেনে শান্তির জন্য ভারত সব করবে: জয়শঙ্কর

ইউক্রেন ইস্যুতে ভারত সম্ভব সর্বোচ্চ সবকিছুই করছে বলে জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। মঙ্গলবার, নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড বিজনেস চেম্বারের প্রধান নির্বাহী সাইমন ব্রিজসের সঙ্গে বৈঠককালে মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই সদস্য বলেন, “পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার আটকাতে আমরা সবকিছু করছি এবং রাশিয়াকে আমরা বারবার বলছি সংঘাতের মাধ্যমে সমাধান সম্ভব নয়। জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিয়েও আমরা মস্কোকে চাপ দিচ্ছি।”

এদিকে, মঙ্গলবারই ইউক্রেন সংঘাতের নিরিখে এশিয়া প্যাসিফিক এর নিরাপত্তা বিষয়ে সদ্য নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে বৈঠকে বসে ভারত। সেই বৈঠকের নিউজিল্যান্ডের প্রতিনিধি তথা সেদেশের বিদেশমন্ত্রী নানাইয়া মাহুতার সঙ্গে ভারতীয় পড়ুয়াদের সে দেশ যাওয়ার প্রসঙ্গ নিয়েও কথা বলেন জয়শঙ্কর।

উল্লেখ্য, নানাইয়া মাহুতা নিউজিল্যান্ডের প্রথম বিদেশমন্ত্রী যিনি ভারত সফরে এসেছেন ২০০১ সালের পর। এই হাই-ভোল্টেজ বৈঠকে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানে বিশ্বের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানেই এস জয়শঙ্কর প্রসঙ্গ তোলেন নিউজিল্যান্ডে অভিবাসন নীতির জেরে কীভাবে ভারতীয় পড়ুয়ারা সেদেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হচ্ছে।

জয়শঙ্কর বলেন, “ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে বিস্তারিতভাবে আলোচনা হয় যে দুই দেশ কীভাবে অবদান রাখবে ইন্দো-প্যাসিফিক এলাকার উন্নয়নে।” এছাড়াও, ইন্দো-প্যাসিফিক এলাকার নিরাপত্তা নিয়ে দুই দেশের মধ্যে আলোচনা হয়। আলোচনায় উঠে আসে আবহাওয়ার পরিবর্তন ও পরিবেশ সংক্রান্ত নানান ঘটনা।

অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের বিদেশমন্ত্রী জানিয়েছেন যে ‘ভারত নিউজিল্যান্ডের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দেশ।’ দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক ছাড়াও কীভাবে দুই দেশের মধ্যে প্রতিরক্ষা খাতে সম্পর্ককে কীভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

এছাড়াও জনসংযোগ, সাংস্কৃতিক সংযোগ সংক্রান্ত বিষয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই আলোচনায় জয়শঙ্কর তুলে ধরেন নিউজিল্যান্ডে পাঠরত ভারতীয় পড়ুয়াদের প্রসঙ্গ। তিনি বলেন, কোভিড ১৯ এর সময় ভারতীয় পড়ুয়ারা ভিসা রিনিউ করার সুযোগ পাননি। নিউজিল্যান্ডের কাছে তাঁর আর্জি, আরও সুন্দর ও সহজতর উপায়ে যেন ওই পড়ুয়াদের বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ইউক্রেনে শান্তির জন্য ভারত সব করবে: জয়শঙ্কর

প্রকাশ: ০১:৪১:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২

ইউক্রেন ইস্যুতে ভারত সম্ভব সর্বোচ্চ সবকিছুই করছে বলে জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। মঙ্গলবার, নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড বিজনেস চেম্বারের প্রধান নির্বাহী সাইমন ব্রিজসের সঙ্গে বৈঠককালে মোদী মন্ত্রীসভার গুরুত্বপূর্ণ এই সদস্য বলেন, “পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার আটকাতে আমরা সবকিছু করছি এবং রাশিয়াকে আমরা বারবার বলছি সংঘাতের মাধ্যমে সমাধান সম্ভব নয়। জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিয়েও আমরা মস্কোকে চাপ দিচ্ছি।”

এদিকে, মঙ্গলবারই ইউক্রেন সংঘাতের নিরিখে এশিয়া প্যাসিফিক এর নিরাপত্তা বিষয়ে সদ্য নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে বৈঠকে বসে ভারত। সেই বৈঠকের নিউজিল্যান্ডের প্রতিনিধি তথা সেদেশের বিদেশমন্ত্রী নানাইয়া মাহুতার সঙ্গে ভারতীয় পড়ুয়াদের সে দেশ যাওয়ার প্রসঙ্গ নিয়েও কথা বলেন জয়শঙ্কর।

উল্লেখ্য, নানাইয়া মাহুতা নিউজিল্যান্ডের প্রথম বিদেশমন্ত্রী যিনি ভারত সফরে এসেছেন ২০০১ সালের পর। এই হাই-ভোল্টেজ বৈঠকে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানে বিশ্বের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানেই এস জয়শঙ্কর প্রসঙ্গ তোলেন নিউজিল্যান্ডে অভিবাসন নীতির জেরে কীভাবে ভারতীয় পড়ুয়ারা সেদেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হচ্ছে।

জয়শঙ্কর বলেন, “ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে বিস্তারিতভাবে আলোচনা হয় যে দুই দেশ কীভাবে অবদান রাখবে ইন্দো-প্যাসিফিক এলাকার উন্নয়নে।” এছাড়াও, ইন্দো-প্যাসিফিক এলাকার নিরাপত্তা নিয়ে দুই দেশের মধ্যে আলোচনা হয়। আলোচনায় উঠে আসে আবহাওয়ার পরিবর্তন ও পরিবেশ সংক্রান্ত নানান ঘটনা।

অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের বিদেশমন্ত্রী জানিয়েছেন যে ‘ভারত নিউজিল্যান্ডের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দেশ।’ দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক ছাড়াও কীভাবে দুই দেশের মধ্যে প্রতিরক্ষা খাতে সম্পর্ককে কীভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

এছাড়াও জনসংযোগ, সাংস্কৃতিক সংযোগ সংক্রান্ত বিষয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই আলোচনায় জয়শঙ্কর তুলে ধরেন নিউজিল্যান্ডে পাঠরত ভারতীয় পড়ুয়াদের প্রসঙ্গ। তিনি বলেন, কোভিড ১৯ এর সময় ভারতীয় পড়ুয়ারা ভিসা রিনিউ করার সুযোগ পাননি। নিউজিল্যান্ডের কাছে তাঁর আর্জি, আরও সুন্দর ও সহজতর উপায়ে যেন ওই পড়ুয়াদের বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক