০১:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রতিরক্ষা শিল্পে সম্পর্ক বাড়াতে আলোচনা

প্রতিরক্ষা শিল্প খাতে সহযোগিতা বাড়ানোর সম্ভাব্য উপায়গুলো নিয়ে আলোচনা করেছে বাংলাদেশ ও ভারত। গত বুধবার গুজরাটের গান্ধীনগরে প্রতিরক্ষা খাতের প্রদর্শনীর ফাঁকে ওই বৈঠক হয়।

ভারতের প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন ব্যুরো (পিআইবি) জানায়, ভারতের প্রতিরক্ষা সচিব অজয় কুমার গত বুধবার সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেন।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, বৈঠকে উভয় পক্ষ দুই দেশের মধ্যে চলমান দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা পর্যালোচনা করেছে। এছাড়া তারা প্রতিরক্ষা শিল্প খাতে সহযোগিতা জোরদারের উপায় নিয়ে আলোচনা করে।

গত মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় দুই দেশের শীর্ষ বৈঠকের পর যৌথ বিবৃতিতে প্রতিরক্ষা খাতে সহযোগিতার প্রসঙ্গ ছিল। ভারত বৃহৎ পরিসরে সমুদ্রসীমার নিরাপত্তা জোরদারে ‘কোস্টাল রাডার’ (উপকূলীয় রাডার) নিতে বাংলাদেশকে অনুরোধ জানিয়েছে।

২০১৯ সালের অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নয়াদিল্লি সফরের সময় বাংলাদেশকে ভারতের উপকূলীয় রাডার দেওয়ার বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছিল। ৬ সেপ্টেম্বর নয়াদিল্লিতে শীর্ষ বৈঠকে ভারত ওই এমওইউ বাস্তবায়নে বাংলাদেশকে অনুরোধ করেছে।

ভারত ২০১৭ সালের এপ্রিলে প্রতিরক্ষা খাতে বাংলাদেশের জন্য ৫০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ ঘোষণা করেছিল। প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক সফরে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুই দেশের নেতারা লাভজনক প্রতিরক্ষা খাতে ঋণের আওতায় প্রকল্পগুলো দ্রুত বাস্তবায়নেও সম্মত হন।

এই লক্ষ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর জন্য গাড়ি কেনার পরিকল্পনা চূড়ান্ত হওয়াকে ভারত স্বাগত জানিয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে প্রতিরক্ষা সম্পর্ক আরো জোরদারের প্রত্যাশা জানিয়েছে ভারত। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

প্রতিরক্ষা শিল্পে সম্পর্ক বাড়াতে আলোচনা

প্রকাশ: ০৪:২৯:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ অক্টোবর ২০২২

প্রতিরক্ষা শিল্প খাতে সহযোগিতা বাড়ানোর সম্ভাব্য উপায়গুলো নিয়ে আলোচনা করেছে বাংলাদেশ ও ভারত। গত বুধবার গুজরাটের গান্ধীনগরে প্রতিরক্ষা খাতের প্রদর্শনীর ফাঁকে ওই বৈঠক হয়।

ভারতের প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন ব্যুরো (পিআইবি) জানায়, ভারতের প্রতিরক্ষা সচিব অজয় কুমার গত বুধবার সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেন।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, বৈঠকে উভয় পক্ষ দুই দেশের মধ্যে চলমান দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা পর্যালোচনা করেছে। এছাড়া তারা প্রতিরক্ষা শিল্প খাতে সহযোগিতা জোরদারের উপায় নিয়ে আলোচনা করে।

গত মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় দুই দেশের শীর্ষ বৈঠকের পর যৌথ বিবৃতিতে প্রতিরক্ষা খাতে সহযোগিতার প্রসঙ্গ ছিল। ভারত বৃহৎ পরিসরে সমুদ্রসীমার নিরাপত্তা জোরদারে ‘কোস্টাল রাডার’ (উপকূলীয় রাডার) নিতে বাংলাদেশকে অনুরোধ জানিয়েছে।

২০১৯ সালের অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নয়াদিল্লি সফরের সময় বাংলাদেশকে ভারতের উপকূলীয় রাডার দেওয়ার বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছিল। ৬ সেপ্টেম্বর নয়াদিল্লিতে শীর্ষ বৈঠকে ভারত ওই এমওইউ বাস্তবায়নে বাংলাদেশকে অনুরোধ করেছে।

ভারত ২০১৭ সালের এপ্রিলে প্রতিরক্ষা খাতে বাংলাদেশের জন্য ৫০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ ঘোষণা করেছিল। প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক সফরে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুই দেশের নেতারা লাভজনক প্রতিরক্ষা খাতে ঋণের আওতায় প্রকল্পগুলো দ্রুত বাস্তবায়নেও সম্মত হন।

এই লক্ষ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর জন্য গাড়ি কেনার পরিকল্পনা চূড়ান্ত হওয়াকে ভারত স্বাগত জানিয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে প্রতিরক্ষা সম্পর্ক আরো জোরদারের প্রত্যাশা জানিয়েছে ভারত। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক