১২:৪৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জি-২০ সম্মেলনের জন্য ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন মোদী

আগামী সপ্তাহে জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাষ্ট্রনেতাদের জন্য নিয়ে যাচ্ছেন উপহারের ডালি। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, হিমাচল প্রদেশে তৈরি করা হস্তশিল্পের সামগ্রী বিশ্বের রাষ্ট্র প্রধানদের হাতে তুলে দেবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

সূত্রের খবর, উপহারের তালিকায় রয়েছে চাম্বার রুমাল। কাংরা জেলার নানান চিত্র, কিন্নুরির শাল, কুলুর শাল সহ নানান সামগ্রী। এর মধ্যে দিয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে হিমাচলের হস্তশিল্প প্রচার পাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক জিডিপিতে ৮৫ শতাংশ অবদান রয়েছে জি ২০ দেশগুলির। ৭৫ শতাংশ আন্তর্জাতিক বাণিজ্য এবং দুই তৃতীয়াংশ জনসংখ্যা রয়েছে জি ২৯ দেশগুলিতে। জি-২০ দেশগুলির তালিকায় রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইন্দোনেশিয়া, ইতালি, জাপান, কোরিয়া প্রজাতন্ত্র, মেক্সিকো, রাশিয়া, সৌদি আরব, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুর্কি, ব্রিটেন, আমেরিকা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

১ ডিসেম্বর জি ২০-এর অধ্যক্ষ পদ গ্রহণ করবে ভারত। ইন্দোনেশিয়ার থেকে এই ক্ষমতা হস্তান্তর হবে ভারতের কাছে। গতকাল জি-২০ সম্মেলনের লোগো, ওয়েবসাইট এবং থিম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পরবর্তী জি ২০ সম্মেলনের থিম ভাসুদাইভা কুটম্বকম। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বহুত্ববাদের কথা বলেন তিনি। বাংলা, কেরল সহ বিভিন্ন ভাষায় স্বাগত জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে কাউকে অভিনন্দন জানাতে বলা হয়, আপনাকে স্বাগত জানাই। এটিই অন্য হিন্দিভাষী রাজ্যে বলা হয়, আপকো স্বাগত হ্যায়।”

জি-২০ সম্মেলনের লোগো পদ্মফুল। বিরোধীদের অভিযোগ, নিজের রাজনৈতিক দলের প্রতীক ব্যবহার করছেন প্রধানমন্ত্রী। গতকালের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যতই প্রতিকূল পরিস্থিতি তৈরি হোক না কেন, পদ্মফুল ফুটবেই। বিদ্যার দেবী সরস্বতী এবং ধনসম্পদের দেবী লক্ষী বসে রয়েছেন পদ্মফুলের ওপর। আজ সারা বিশ্বে তৈরি হওয়া পরিস্থিতিতে এই দুইয়ের প্রয়োজন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোদী বলেন, এক পৃথিবী, এক পরিবার, এক ভবিষ্যত। পদ্মফুলের সাতটি পাপড়ি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। তাঁর দাবি, সুরের ক্ষেত্রেও সাতটিই মাত্রা রয়েছে। সবগুলো একত্র হলে তবেই সুর সৃষ্টি হয়। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

 

ট্যাগ:

জি-২০ সম্মেলনের জন্য ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন মোদী

প্রকাশ: ০৯:৩৮:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১০ নভেম্বর ২০২২

আগামী সপ্তাহে জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাষ্ট্রনেতাদের জন্য নিয়ে যাচ্ছেন উপহারের ডালি। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, হিমাচল প্রদেশে তৈরি করা হস্তশিল্পের সামগ্রী বিশ্বের রাষ্ট্র প্রধানদের হাতে তুলে দেবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

সূত্রের খবর, উপহারের তালিকায় রয়েছে চাম্বার রুমাল। কাংরা জেলার নানান চিত্র, কিন্নুরির শাল, কুলুর শাল সহ নানান সামগ্রী। এর মধ্যে দিয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে হিমাচলের হস্তশিল্প প্রচার পাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক জিডিপিতে ৮৫ শতাংশ অবদান রয়েছে জি ২০ দেশগুলির। ৭৫ শতাংশ আন্তর্জাতিক বাণিজ্য এবং দুই তৃতীয়াংশ জনসংখ্যা রয়েছে জি ২৯ দেশগুলিতে। জি-২০ দেশগুলির তালিকায় রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইন্দোনেশিয়া, ইতালি, জাপান, কোরিয়া প্রজাতন্ত্র, মেক্সিকো, রাশিয়া, সৌদি আরব, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুর্কি, ব্রিটেন, আমেরিকা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

১ ডিসেম্বর জি ২০-এর অধ্যক্ষ পদ গ্রহণ করবে ভারত। ইন্দোনেশিয়ার থেকে এই ক্ষমতা হস্তান্তর হবে ভারতের কাছে। গতকাল জি-২০ সম্মেলনের লোগো, ওয়েবসাইট এবং থিম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পরবর্তী জি ২০ সম্মেলনের থিম ভাসুদাইভা কুটম্বকম। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বহুত্ববাদের কথা বলেন তিনি। বাংলা, কেরল সহ বিভিন্ন ভাষায় স্বাগত জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে কাউকে অভিনন্দন জানাতে বলা হয়, আপনাকে স্বাগত জানাই। এটিই অন্য হিন্দিভাষী রাজ্যে বলা হয়, আপকো স্বাগত হ্যায়।”

জি-২০ সম্মেলনের লোগো পদ্মফুল। বিরোধীদের অভিযোগ, নিজের রাজনৈতিক দলের প্রতীক ব্যবহার করছেন প্রধানমন্ত্রী। গতকালের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যতই প্রতিকূল পরিস্থিতি তৈরি হোক না কেন, পদ্মফুল ফুটবেই। বিদ্যার দেবী সরস্বতী এবং ধনসম্পদের দেবী লক্ষী বসে রয়েছেন পদ্মফুলের ওপর। আজ সারা বিশ্বে তৈরি হওয়া পরিস্থিতিতে এই দুইয়ের প্রয়োজন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোদী বলেন, এক পৃথিবী, এক পরিবার, এক ভবিষ্যত। পদ্মফুলের সাতটি পাপড়ি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। তাঁর দাবি, সুরের ক্ষেত্রেও সাতটিই মাত্রা রয়েছে। সবগুলো একত্র হলে তবেই সুর সৃষ্টি হয়। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক