০৮:৪১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দারিদ্র্যের সঙ্গে লড়াইয়ে ‘প্রযুক্তি অস্ত্র’ ভারতের

দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রযুক্তিকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে ভারত। বেঙ্গালুরু টেক সামিটে এই মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বুধবার পূর্ববর্তী রেকর্ডিং করা একটি ভিডিও বার্তায় প্রধানমন্ত্রী এমন কথা বলেছেন।

মোদী বলেন, “ভারতের তরুণ প্রজন্ম প্রযুক্তি ও প্রতিভা বিশ্বায়ন নিশ্চিত করেছে। কীভাবে প্রযুক্তিকে গণতান্ত্রিক করতে হয় তা ভারত দেখিয়েছে। প্রযুক্তির মাধ্যমে আমরা দেশের পরিকাঠামো উন্নয়নও রূপান্তরিত করছি। পিএম গতিশক্তি, একটি অনলাইন জিআইএস সক্ষম পোর্টালের মাধ্যমে, দেশে মাল্টি মডেল সংযোগ নিশ্চিত করতে একাধিক সেক্টরকে একসঙ্গে কাজ করতে সহায়তা করছে।”

বেঙ্গালুরু টেক সামিটে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “উদ্ভাবন গুরুত্বপূর্ণ, কিন্তু একীকরণের দ্বারা সমর্থিত হলে, এটি একটি প্রধান শক্তি হয়ে ওঠে।”

মোদীর কথায়, “ভারতের উদ্ভাবন সূচকে বেঙ্গালুরু এক নম্বরে। বেঙ্গালুরু প্রযুক্তির আবাসস্থল। এটি একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং উদ্ভাবনী শহর। এই বছর বিশ্বব্যাপী উদ্ভাবন সূচকে ভারত ৪০ তম স্থানে উঠে এসেছে। ২০১৫ সালে আমরা ৮১ তম স্থানে ছিলাম।”

ভারত সরকারের সুপ্রিমো বলেন, “ভারতে ইউনিকর্ন স্টার্টআপের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে, আমরা এখন বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, “আপনাদের বিনিয়োগ ও আমাদের উদ্ভাবনের মেলবন্ধন বিস্ময়কর কাজ করতে পারে। আমি আপনাদের সকলকে আমাদের সঙ্গে কাজ করার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।” খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

দারিদ্র্যের সঙ্গে লড়াইয়ে ‘প্রযুক্তি অস্ত্র’ ভারতের

প্রকাশ: ১০:০২:৫৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ নভেম্বর ২০২২

দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রযুক্তিকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে ভারত। বেঙ্গালুরু টেক সামিটে এই মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বুধবার পূর্ববর্তী রেকর্ডিং করা একটি ভিডিও বার্তায় প্রধানমন্ত্রী এমন কথা বলেছেন।

মোদী বলেন, “ভারতের তরুণ প্রজন্ম প্রযুক্তি ও প্রতিভা বিশ্বায়ন নিশ্চিত করেছে। কীভাবে প্রযুক্তিকে গণতান্ত্রিক করতে হয় তা ভারত দেখিয়েছে। প্রযুক্তির মাধ্যমে আমরা দেশের পরিকাঠামো উন্নয়নও রূপান্তরিত করছি। পিএম গতিশক্তি, একটি অনলাইন জিআইএস সক্ষম পোর্টালের মাধ্যমে, দেশে মাল্টি মডেল সংযোগ নিশ্চিত করতে একাধিক সেক্টরকে একসঙ্গে কাজ করতে সহায়তা করছে।”

বেঙ্গালুরু টেক সামিটে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “উদ্ভাবন গুরুত্বপূর্ণ, কিন্তু একীকরণের দ্বারা সমর্থিত হলে, এটি একটি প্রধান শক্তি হয়ে ওঠে।”

মোদীর কথায়, “ভারতের উদ্ভাবন সূচকে বেঙ্গালুরু এক নম্বরে। বেঙ্গালুরু প্রযুক্তির আবাসস্থল। এটি একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং উদ্ভাবনী শহর। এই বছর বিশ্বব্যাপী উদ্ভাবন সূচকে ভারত ৪০ তম স্থানে উঠে এসেছে। ২০১৫ সালে আমরা ৮১ তম স্থানে ছিলাম।”

ভারত সরকারের সুপ্রিমো বলেন, “ভারতে ইউনিকর্ন স্টার্টআপের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে, আমরা এখন বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, “আপনাদের বিনিয়োগ ও আমাদের উদ্ভাবনের মেলবন্ধন বিস্ময়কর কাজ করতে পারে। আমি আপনাদের সকলকে আমাদের সঙ্গে কাজ করার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।” খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক