০২:২০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারতীয় কোস্টগার্ডে অ্যাডভান্সড লাইট হেলিকপ্টার

ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হিন্দুস্থান অ্যারোনটিক্স লিমিটেড (হ্যাল)-এর তৈরি ‘অ্যাডভান্সড লাইট হেলিকপ্টার’ (এএলএইচ) এ বার পাড়ি দিচ্ছে বিদেশে। ভারত মহাসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র মরিশাসের রক্ষী বাহিনীর জন্য ওই কপ্টার রফতানি করবে হ্যাল। চলতি সপ্তাহেই এ বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি সই করেছেন হ্যাল-এর জেনারেল ম্যানেজার বি কে ত্রিপাঠী এবং মরিশাসেস স্বরাষ্ট্র সচিব ও কে দাবেদিন।

ভারতীয় সেনা এবং বিমানবাহিনীর জন্য পাঁচ দশকের পুরনো চিতা এবং চেতক হেলিকপ্টারের পরিবর্ত হিসেবে কয়েক বছর আগে বহুমুখী ব্যবহারযোগ্য হালকা হেলিকপ্টার (লাইট ইউটিলিটি হেলিকপ্টার বা এলইউএইচ) তৈরি করেছিল হ্যাল। তারই উন্নততর সংস্করণ এএলএইচ মার্ক-৩ পাঠানো হবে মরিশাসে। সাম্প্রতিক কালে লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) চীনা সেনার সঙ্গে টানাপড়েনের সময় পাঠানো হয়েছিল এএলএইচ মার্ক-৩।

সাড়ে পাঁচ টন শ্রেণির এই কপ্টারগুলো প্রতিকূল আবহাওয়ার উড়তে সক্ষম। তবে ৭০ মিলিমিটার রকেট ব্যবহারে সক্ষম হলেও সেগুলো আকাশ যুদ্ধের উপযুক্ত ‘এয়ার টু এয়ার’ ক্ষেপণাস্ত্র বহন করতে পারে না। প্রসঙ্গত, হ্যাল-এর তৈরি হাল্কা যুদ্ধ হেলিকপ্টার ‘ধ্রুব’ গত দু’দশক ধরে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর তিনি শাখা ব্যবহার করে। মরিশাস এর আগে হ্যালের তৈরি একটি এলইউএইচ এবং ডর্নিয়ার ডিও-২২৮ বিমান ব্যবহার করেছে মরিশাস। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

ভারতীয় কোস্টগার্ডে অ্যাডভান্সড লাইট হেলিকপ্টার

প্রকাশ: ০৭:৫৫:৩৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২

ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হিন্দুস্থান অ্যারোনটিক্স লিমিটেড (হ্যাল)-এর তৈরি ‘অ্যাডভান্সড লাইট হেলিকপ্টার’ (এএলএইচ) এ বার পাড়ি দিচ্ছে বিদেশে। ভারত মহাসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র মরিশাসের রক্ষী বাহিনীর জন্য ওই কপ্টার রফতানি করবে হ্যাল। চলতি সপ্তাহেই এ বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি সই করেছেন হ্যাল-এর জেনারেল ম্যানেজার বি কে ত্রিপাঠী এবং মরিশাসেস স্বরাষ্ট্র সচিব ও কে দাবেদিন।

ভারতীয় সেনা এবং বিমানবাহিনীর জন্য পাঁচ দশকের পুরনো চিতা এবং চেতক হেলিকপ্টারের পরিবর্ত হিসেবে কয়েক বছর আগে বহুমুখী ব্যবহারযোগ্য হালকা হেলিকপ্টার (লাইট ইউটিলিটি হেলিকপ্টার বা এলইউএইচ) তৈরি করেছিল হ্যাল। তারই উন্নততর সংস্করণ এএলএইচ মার্ক-৩ পাঠানো হবে মরিশাসে। সাম্প্রতিক কালে লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) চীনা সেনার সঙ্গে টানাপড়েনের সময় পাঠানো হয়েছিল এএলএইচ মার্ক-৩।

সাড়ে পাঁচ টন শ্রেণির এই কপ্টারগুলো প্রতিকূল আবহাওয়ার উড়তে সক্ষম। তবে ৭০ মিলিমিটার রকেট ব্যবহারে সক্ষম হলেও সেগুলো আকাশ যুদ্ধের উপযুক্ত ‘এয়ার টু এয়ার’ ক্ষেপণাস্ত্র বহন করতে পারে না। প্রসঙ্গত, হ্যাল-এর তৈরি হাল্কা যুদ্ধ হেলিকপ্টার ‘ধ্রুব’ গত দু’দশক ধরে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর তিনি শাখা ব্যবহার করে। মরিশাস এর আগে হ্যালের তৈরি একটি এলইউএইচ এবং ডর্নিয়ার ডিও-২২৮ বিমান ব্যবহার করেছে মরিশাস। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক