১২:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাইবার চ্যালেঞ্জ ক্যাম্পেইন নিয়ে হাজির ‘কোয়াড’

ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার সমন্বয়ে গঠিত কূটনৈতিক সামরিক জোট কোয়াড এর সাইবার নিরাপত্তা উন্নত করার জন্য ‘কোয়াড সাইবার চ্যালেঞ্জ’ নামে একটি পাবলিক ক্যাম্পেইন চালু করা হয়েছে। বুধবার, তথ্যটি জানিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ সচিবালয়।

জানা গিয়েছে, নতুন এই ক্যাম্পেইনটি ব্যক্তি এবং সম্প্রদায়ের সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা ও কর্মকে শক্তিশালী করার জন্য ক্রমাগত কোয়াড প্রচেষ্টার প্রতিফলন ঘটাবে এবং একই সাথে অর্থনীতি ও ব্যবহারকারীদের সর্বত্র উপকৃত করার জন্য আরও নিরাপদ এবং স্থিতিস্থাপক সাইবার ইকোসিস্টেম গড়ে তোলার সুযোগ হবে।

নিরাপত্তা পরিষদ সচিবালয় সূত্রে জানানো হয়েছে, কোয়াডভূক্ত নাগরিক যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন, ইন্দো-প্যাসিফিক কিংবা এর বাইরে অবস্থান করছেন, তাদেরকেও এই ক্যাম্পেইনে যোগ দিতে এবং নিরাপদ ও দায়িত্বশীল সাইবার অভ্যাস অনুশীলন করার অঙ্গীকার করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে।

গোটা উদ্যোগের ব্যাখ্যা করে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ উল্লেখ করেছে যে, বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেট-ব্যবহারকারীরা সাইবার ক্রাইম এবং অন্যান্য দূষিত সাইবার হুমকি, যা প্রতি বছর ট্রিলিয়ন ডলার খরচ করতে পারে এবং সংবেদনশীল, ব্যক্তিগত ডেটার সাথে আপস করতে পারে- সেগুলো থেকে অনেক সফল সাইবার-আক্রমণকে সাধারণ প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার মাধ্যমে রক্ষা করা যেতে পারে।

একইসাথে, ইন্টারনেট ব্যবহারকারী এবং প্রদানকারীরা সাইবার নিরাপত্তা এবং সাইবার নিরাপত্তা উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত করতে ছোট ছোট পদক্ষেপ নিতে পারে। এই পদক্ষেপগুলির মধ্যে রয়েছে নিয়মিত নিরাপত্তা আপডেটগুলি ইনস্টল করা, মাল্টি-ফ্যাক্টর প্রমাণীকরণের মাধ্যমে উন্নত পরিচয় পরীক্ষা সক্ষম করা, আরও শক্তিশালী এবং নিয়মিত পাসফ্রেজ পরিবর্তন করা এবং ফিশিংয়ের মতো সাধারণ অনলাইন স্ক্যামগুলি কীভাবে সনাক্ত করা যায় তা জানা। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

সাইবার চ্যালেঞ্জ ক্যাম্পেইন নিয়ে হাজির ‘কোয়াড’

প্রকাশ: ১২:১৪:৫২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার সমন্বয়ে গঠিত কূটনৈতিক সামরিক জোট কোয়াড এর সাইবার নিরাপত্তা উন্নত করার জন্য ‘কোয়াড সাইবার চ্যালেঞ্জ’ নামে একটি পাবলিক ক্যাম্পেইন চালু করা হয়েছে। বুধবার, তথ্যটি জানিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ সচিবালয়।

জানা গিয়েছে, নতুন এই ক্যাম্পেইনটি ব্যক্তি এবং সম্প্রদায়ের সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা ও কর্মকে শক্তিশালী করার জন্য ক্রমাগত কোয়াড প্রচেষ্টার প্রতিফলন ঘটাবে এবং একই সাথে অর্থনীতি ও ব্যবহারকারীদের সর্বত্র উপকৃত করার জন্য আরও নিরাপদ এবং স্থিতিস্থাপক সাইবার ইকোসিস্টেম গড়ে তোলার সুযোগ হবে।

নিরাপত্তা পরিষদ সচিবালয় সূত্রে জানানো হয়েছে, কোয়াডভূক্ত নাগরিক যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন, ইন্দো-প্যাসিফিক কিংবা এর বাইরে অবস্থান করছেন, তাদেরকেও এই ক্যাম্পেইনে যোগ দিতে এবং নিরাপদ ও দায়িত্বশীল সাইবার অভ্যাস অনুশীলন করার অঙ্গীকার করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে।

গোটা উদ্যোগের ব্যাখ্যা করে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ উল্লেখ করেছে যে, বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেট-ব্যবহারকারীরা সাইবার ক্রাইম এবং অন্যান্য দূষিত সাইবার হুমকি, যা প্রতি বছর ট্রিলিয়ন ডলার খরচ করতে পারে এবং সংবেদনশীল, ব্যক্তিগত ডেটার সাথে আপস করতে পারে- সেগুলো থেকে অনেক সফল সাইবার-আক্রমণকে সাধারণ প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার মাধ্যমে রক্ষা করা যেতে পারে।

একইসাথে, ইন্টারনেট ব্যবহারকারী এবং প্রদানকারীরা সাইবার নিরাপত্তা এবং সাইবার নিরাপত্তা উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত করতে ছোট ছোট পদক্ষেপ নিতে পারে। এই পদক্ষেপগুলির মধ্যে রয়েছে নিয়মিত নিরাপত্তা আপডেটগুলি ইনস্টল করা, মাল্টি-ফ্যাক্টর প্রমাণীকরণের মাধ্যমে উন্নত পরিচয় পরীক্ষা সক্ষম করা, আরও শক্তিশালী এবং নিয়মিত পাসফ্রেজ পরিবর্তন করা এবং ফিশিংয়ের মতো সাধারণ অনলাইন স্ক্যামগুলি কীভাবে সনাক্ত করা যায় তা জানা। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক