০৩:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সম্পর্কের গভীরতায় মনযোগী ভারত-আইসল্যান্ড

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সার্বিক অবস্থার পর্যালোচনা পূর্বক সম্পর্ক আরও স্থায়ী ও প্রসারিত করার উদ্যোগ নিয়েছে ভারত এবং আইসল্যান্ড। সোমবার, নয়াদিল্লীতে উভয় রাষ্ট্রের পররাষ্ট্র কর্তাদের মধ্যে অনুষ্ঠিত তৃতীয় পরামর্শ সভায় এ বিষয়ে বিশদ আলোচনা করা হয়। উল্লেখ্য, গত বছরই সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্ণ করেছে দু দেশ।

বৈঠকে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পশ্চিম) সঞ্জয় ভার্মা। অন্যদিকে, আইসল্যান্ড প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন আইসল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সচিব মার্টিন ইজলফসন।

পরবর্তীতে ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর জানায়, উভয় পক্ষই রাজনৈতিক, বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ, ভারত-আইএসল্যান্ড ইএফটিএ-টিইপিএ আলোচনা, মৎস্যসম্পদ, ভূ-তাপীয় সহযোগিতা, সক্ষমতা বৃদ্ধি, সাংস্কৃতিক সম্পর্ক এবং জনগণ-সহ সকল ক্ষেত্রে সম্পর্কের অবস্থা ব্যাপকভাবে পর্যালোচনা করেছে।

এছাড়াও, বহুপাক্ষিক ফোরাম বিশেষ করে জাতিসংঘ সহ সহযোগিতার ভবিষ্যৎ দিকনির্দেশনা নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়েছে বৈঠকে। একই সঙ্গে, ইইউ, ইউক্রেনের সংঘাত, আর্কটিক এবং লিঙ্গ সমস্যাগুলির উন্নয়ন সহ পারস্পরিক স্বার্থের আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ে মতামত বিনিময় করার সুযোগ প্রদান করেছে এই বৈঠক।

পরবর্তী পরামর্শ সভা শীঘ্রই সুবিধাজনক সময়ে আইসল্যান্ডের রাজধানী রেকজাভিকে অনুষ্ঠিত হবে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক

ট্যাগ:

সম্পর্কের গভীরতায় মনযোগী ভারত-আইসল্যান্ড

প্রকাশ: ০৮:৩১:১৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সার্বিক অবস্থার পর্যালোচনা পূর্বক সম্পর্ক আরও স্থায়ী ও প্রসারিত করার উদ্যোগ নিয়েছে ভারত এবং আইসল্যান্ড। সোমবার, নয়াদিল্লীতে উভয় রাষ্ট্রের পররাষ্ট্র কর্তাদের মধ্যে অনুষ্ঠিত তৃতীয় পরামর্শ সভায় এ বিষয়ে বিশদ আলোচনা করা হয়। উল্লেখ্য, গত বছরই সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্ণ করেছে দু দেশ।

বৈঠকে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পশ্চিম) সঞ্জয় ভার্মা। অন্যদিকে, আইসল্যান্ড প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন আইসল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সচিব মার্টিন ইজলফসন।

পরবর্তীতে ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর জানায়, উভয় পক্ষই রাজনৈতিক, বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ, ভারত-আইএসল্যান্ড ইএফটিএ-টিইপিএ আলোচনা, মৎস্যসম্পদ, ভূ-তাপীয় সহযোগিতা, সক্ষমতা বৃদ্ধি, সাংস্কৃতিক সম্পর্ক এবং জনগণ-সহ সকল ক্ষেত্রে সম্পর্কের অবস্থা ব্যাপকভাবে পর্যালোচনা করেছে।

এছাড়াও, বহুপাক্ষিক ফোরাম বিশেষ করে জাতিসংঘ সহ সহযোগিতার ভবিষ্যৎ দিকনির্দেশনা নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়েছে বৈঠকে। একই সঙ্গে, ইইউ, ইউক্রেনের সংঘাত, আর্কটিক এবং লিঙ্গ সমস্যাগুলির উন্নয়ন সহ পারস্পরিক স্বার্থের আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ে মতামত বিনিময় করার সুযোগ প্রদান করেছে এই বৈঠক।

পরবর্তী পরামর্শ সভা শীঘ্রই সুবিধাজনক সময়ে আইসল্যান্ডের রাজধানী রেকজাভিকে অনুষ্ঠিত হবে। খবর: ইন্ডিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক