১১:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তৃপ্তির নতুন প্রেমিক কে?

‘অ্যানিম্যাল’ ছবিতে স্বল্প উপস্থিতিতেই নজর কেড়েছেন তৃপ্তি দিমরি। সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গার এ ছবির সুবাদে এখন জাতীয় ক্রাশ ‘ভাবি ২’। যদিও তৃপ্তি কিন্তু শোবিজ দুনিয়ায় কাজ করছেন ২০১২ সাল থেকে। ‘লায়লা মজনু’ ছবির হাত ধরে রুপালি সফর শুরু করেছিলেন তিনি, এরপর ‘বুলবুল’, ‘কলা’-র মতো ওটিটি অরিজিন্যাল ফিল্মে নিজের অভিনয় দক্ষতার ছাপ রেখেছেন। কিন্তু ‘অ্যানিম্যাল’-এ রণবীর কাপুরের শয্যাসঙ্গী হয়েই মিলেছে যাবতীয় লাইমলাইট। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

‘অ্যানিম্যাল’-এর ভাবি ২, বাস্তব জীবনে কি এখনই ‘ভাবি’ হতে রাজি? বিয়ে নিয়ে পরিকল্পনা ফাঁস করলেন অভিনেত্রী। বছর খানেক আগেও অভিনেত্রী অনুশকা শর্মার ভাইবউ হওয়ার কথা ছিল তৃপ্তির, অনুশকার ভাই কর্ণেশ শর্মাকে ডেট করেছেন তৃপ্তি। তবে ২০২৩-এ ভেঙে যায় তাদের প্রেম। এরপর ব্যবসায়ী স্যাম মার্চেন্টের সঙ্গে তৃপ্তির প্রেমের গুঞ্জন শোনা গিয়েছে।

বিয়ে নিয়ে প্রশ্ন রাখা হলে অভিনেত্রী সটান জানান, আপতত কাজেই মন তার। কাজ ছাড়া অন্য কিচ্ছু ভাবছেন না। কিন্তু কেমন বর চান তিনি? হবু বরের মধ্যে একটাই গুণ থাকা চাই। তৃপ্তি জানান, তাকে একজন ভালো মনের মানুষ হতে হবে, আর কিচ্ছু চাই না।

২৯ বছর বয়সী অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলোয়ার্সের সংখ্যা হু হু করে বাড়তে থাকে অ্যানিম্যাল মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই। সিনেমায় জোয়ার চরিত্রে দেখা গিয়েছে তাকে। রোজ সোশ্যালে হাজারো প্রেম প্রস্তাব পাচ্ছেন তৃপ্তি। ২০২২ সালে কার্ণেশ শর্মার সঙ্গে আদরমাখা ছবি পোস্ট করে প্রেমে সিলমোহর দিয়েছিলেন তৃপ্তি। কিন্তু মাস কয়েক যেতে না যেতেই ছন্দপতন। পথ আলাদা হয় দুজনের।

ওদিকে গত মাসেই স্যাম মার্চেন্টের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় ধরা দেন তৃপ্তি। একাধিক রেস্তোরাঁ আছে স্যামের। গোয়াতে ওয়েটার বিচ লাউঞ্জ ও গ্রিলেরও মালিক তিনি। বলিউড তারকাদের সঙ্গে বেশ ওঠাবসা তার। ইনস্টাগ্রামে স্যামকে ফলো করেন দিশা পাটানি, টাইগার শ্রফরা।

অ্যানিম্যালে রণবীরের সঙ্গে যৌনদৃশ্যে অভিনয় করা নিয়ে কম সমলাোচনার মুখে পড়ছেন না তৃপ্তি। সেই প্রসঙ্গে তার জবাব, ‘আমি অভিনেত্রী হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, কেউ আমাকে বাধ্য করেনি। আমি এই পেশায় এসেছি কারণ এই কাজটা আমার মধ্যে শিহরণ জাগায়। আমি যখন অভিনয় করি, একটা চরিত্র হয়ে উঠি সেটা আমার ক্ষতগুলোয় মলম লাগায়। চ্যালেঞ্জের মধ্যে আমি আনন্দ খুঁজে পাই’।

 

ট্যাগ:

তৃপ্তির নতুন প্রেমিক কে?

প্রকাশ: ১০:৫৬:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

‘অ্যানিম্যাল’ ছবিতে স্বল্প উপস্থিতিতেই নজর কেড়েছেন তৃপ্তি দিমরি। সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গার এ ছবির সুবাদে এখন জাতীয় ক্রাশ ‘ভাবি ২’। যদিও তৃপ্তি কিন্তু শোবিজ দুনিয়ায় কাজ করছেন ২০১২ সাল থেকে। ‘লায়লা মজনু’ ছবির হাত ধরে রুপালি সফর শুরু করেছিলেন তিনি, এরপর ‘বুলবুল’, ‘কলা’-র মতো ওটিটি অরিজিন্যাল ফিল্মে নিজের অভিনয় দক্ষতার ছাপ রেখেছেন। কিন্তু ‘অ্যানিম্যাল’-এ রণবীর কাপুরের শয্যাসঙ্গী হয়েই মিলেছে যাবতীয় লাইমলাইট। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

‘অ্যানিম্যাল’-এর ভাবি ২, বাস্তব জীবনে কি এখনই ‘ভাবি’ হতে রাজি? বিয়ে নিয়ে পরিকল্পনা ফাঁস করলেন অভিনেত্রী। বছর খানেক আগেও অভিনেত্রী অনুশকা শর্মার ভাইবউ হওয়ার কথা ছিল তৃপ্তির, অনুশকার ভাই কর্ণেশ শর্মাকে ডেট করেছেন তৃপ্তি। তবে ২০২৩-এ ভেঙে যায় তাদের প্রেম। এরপর ব্যবসায়ী স্যাম মার্চেন্টের সঙ্গে তৃপ্তির প্রেমের গুঞ্জন শোনা গিয়েছে।

বিয়ে নিয়ে প্রশ্ন রাখা হলে অভিনেত্রী সটান জানান, আপতত কাজেই মন তার। কাজ ছাড়া অন্য কিচ্ছু ভাবছেন না। কিন্তু কেমন বর চান তিনি? হবু বরের মধ্যে একটাই গুণ থাকা চাই। তৃপ্তি জানান, তাকে একজন ভালো মনের মানুষ হতে হবে, আর কিচ্ছু চাই না।

২৯ বছর বয়সী অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলোয়ার্সের সংখ্যা হু হু করে বাড়তে থাকে অ্যানিম্যাল মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই। সিনেমায় জোয়ার চরিত্রে দেখা গিয়েছে তাকে। রোজ সোশ্যালে হাজারো প্রেম প্রস্তাব পাচ্ছেন তৃপ্তি। ২০২২ সালে কার্ণেশ শর্মার সঙ্গে আদরমাখা ছবি পোস্ট করে প্রেমে সিলমোহর দিয়েছিলেন তৃপ্তি। কিন্তু মাস কয়েক যেতে না যেতেই ছন্দপতন। পথ আলাদা হয় দুজনের।

ওদিকে গত মাসেই স্যাম মার্চেন্টের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় ধরা দেন তৃপ্তি। একাধিক রেস্তোরাঁ আছে স্যামের। গোয়াতে ওয়েটার বিচ লাউঞ্জ ও গ্রিলেরও মালিক তিনি। বলিউড তারকাদের সঙ্গে বেশ ওঠাবসা তার। ইনস্টাগ্রামে স্যামকে ফলো করেন দিশা পাটানি, টাইগার শ্রফরা।

অ্যানিম্যালে রণবীরের সঙ্গে যৌনদৃশ্যে অভিনয় করা নিয়ে কম সমলাোচনার মুখে পড়ছেন না তৃপ্তি। সেই প্রসঙ্গে তার জবাব, ‘আমি অভিনেত্রী হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, কেউ আমাকে বাধ্য করেনি। আমি এই পেশায় এসেছি কারণ এই কাজটা আমার মধ্যে শিহরণ জাগায়। আমি যখন অভিনয় করি, একটা চরিত্র হয়ে উঠি সেটা আমার ক্ষতগুলোয় মলম লাগায়। চ্যালেঞ্জের মধ্যে আমি আনন্দ খুঁজে পাই’।