১১:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রোগ্রামিংয়ে দ্রুত বর্ধনশীল দেশের তালিকায় বাংলাদেশ

বিশ্বব্যাপী সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টের অন্যতম বৃহৎ প্ল্যাটফর্ম গিটহাবের সাম্প্রতিক তথ্য অনুযায়ী প্রোগ্রামিংয়ে বাংলাদেশ সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল দেশ হিসেবে অবস্থান করছে।

অলাভজনক প্রকাশনী রেস্ট অব ওয়ার্ল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালের তৃতীয় প্রান্তিক থেকে ২০২৩ সালের তৃতীয় প্রান্তিকের মধ্যকার সময়ে বাংলাদেশে ৬৬ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রোগ্রামিং খাতে। ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে পর্যন্ত তিন মাসে গিটহাবে ৯ লাখ ৪৫ হাজার ৬৯৬ জন বাংলাদেশি ডেভেলপার ছিলেন। ২০২২ সালের একই সময়ে দেশে মাত্র ৫ লাখ ৬৮ হাজার ১৪৫ জন ডেভেলপার ছিলেন, যা এক বছরের তুলনায় প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ বেড়েছে। এটি বিশ্বের যে কোন দেশের জন্য সর্বোচ্চ আনুপাতিক হারে বৃদ্ধি বলে মনে করছে সংস্থাটি।

গিটহাব বিশ্বব্যাপী সফ্টওয়্যার বিকাশের জন্য বৃহত্তম প্লাটফর্মগুলোর মধ্যে একটি, যা ওপেন সোর্স সহযোগিতার জন্য ব্যবহৃত পাবলিক সংগ্রহশালা এবং সীমিত সংগ্রহশালার মধ্যে বিভক্ত, কেবল প্রকল্পের অংশগ্রহণকারীদের জন্য তা উন্মুক্ত। গিটহাব দীর্ঘদিন ধরে পৃথক প্রোগ্রামারদের মূল্যায়ন করার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে, প্ল্যাটফর্মের ডেটা পৃথিবীর প্রতিটি দেশের বিকাশকারীদের অবদানও দেখায়, কোন দেশগুলো দ্রুততম বাড়ছে তার ১টি উল্লেখযোগ্য চিত্র তারা তুলে ধরছে। গিটহাব ইনোভেশন গ্রাফ নামে একটি প্রকল্পের অংশ হিসেবে ত্রৈমাসিক ডেটা প্রকাশ করে। কিছু দেশের জন্য, ডেটা গত বছরের তুলনায় ডেভেলপারদের সংখ্যায় একটি আশ্চর্যজনক উল্লম্ফন দেখায়।

গিটহাবের ডেভেলপার পলিসি বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক লিংকসভেয়ার রেস্ট অব ওয়ার্ল্ডকে বলেন, একটি নির্দিষ্ট দেশের প্রযুক্তি কর্মীদের জন্য সংখ্যার অর্থ কী তা বলা কঠিন। এটি কারও জন্য নেতৃত্ব দিতে পারে এবং অন্যদের জন্য পিছিয়ে থাকতে পারে। বাংলাদেশে জিডিপিতে অবিচ্ছিন্ন বৃদ্ধির ফলে লাখ লাখ তরুণ প্রথমবারের মতো ডিজিটাল সরঞ্জামগুলোতে অ্যাক্সেস পেয়েছে, দেশের আইটি খাতে তা জ্বালানী হিসেবে কাজ করেছে।

ট্যাগ:

প্রোগ্রামিংয়ে দ্রুত বর্ধনশীল দেশের তালিকায় বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০৭:৩৪:৫২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বিশ্বব্যাপী সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টের অন্যতম বৃহৎ প্ল্যাটফর্ম গিটহাবের সাম্প্রতিক তথ্য অনুযায়ী প্রোগ্রামিংয়ে বাংলাদেশ সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল দেশ হিসেবে অবস্থান করছে।

অলাভজনক প্রকাশনী রেস্ট অব ওয়ার্ল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালের তৃতীয় প্রান্তিক থেকে ২০২৩ সালের তৃতীয় প্রান্তিকের মধ্যকার সময়ে বাংলাদেশে ৬৬ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রোগ্রামিং খাতে। ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে পর্যন্ত তিন মাসে গিটহাবে ৯ লাখ ৪৫ হাজার ৬৯৬ জন বাংলাদেশি ডেভেলপার ছিলেন। ২০২২ সালের একই সময়ে দেশে মাত্র ৫ লাখ ৬৮ হাজার ১৪৫ জন ডেভেলপার ছিলেন, যা এক বছরের তুলনায় প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ বেড়েছে। এটি বিশ্বের যে কোন দেশের জন্য সর্বোচ্চ আনুপাতিক হারে বৃদ্ধি বলে মনে করছে সংস্থাটি।

গিটহাব বিশ্বব্যাপী সফ্টওয়্যার বিকাশের জন্য বৃহত্তম প্লাটফর্মগুলোর মধ্যে একটি, যা ওপেন সোর্স সহযোগিতার জন্য ব্যবহৃত পাবলিক সংগ্রহশালা এবং সীমিত সংগ্রহশালার মধ্যে বিভক্ত, কেবল প্রকল্পের অংশগ্রহণকারীদের জন্য তা উন্মুক্ত। গিটহাব দীর্ঘদিন ধরে পৃথক প্রোগ্রামারদের মূল্যায়ন করার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে, প্ল্যাটফর্মের ডেটা পৃথিবীর প্রতিটি দেশের বিকাশকারীদের অবদানও দেখায়, কোন দেশগুলো দ্রুততম বাড়ছে তার ১টি উল্লেখযোগ্য চিত্র তারা তুলে ধরছে। গিটহাব ইনোভেশন গ্রাফ নামে একটি প্রকল্পের অংশ হিসেবে ত্রৈমাসিক ডেটা প্রকাশ করে। কিছু দেশের জন্য, ডেটা গত বছরের তুলনায় ডেভেলপারদের সংখ্যায় একটি আশ্চর্যজনক উল্লম্ফন দেখায়।

গিটহাবের ডেভেলপার পলিসি বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক লিংকসভেয়ার রেস্ট অব ওয়ার্ল্ডকে বলেন, একটি নির্দিষ্ট দেশের প্রযুক্তি কর্মীদের জন্য সংখ্যার অর্থ কী তা বলা কঠিন। এটি কারও জন্য নেতৃত্ব দিতে পারে এবং অন্যদের জন্য পিছিয়ে থাকতে পারে। বাংলাদেশে জিডিপিতে অবিচ্ছিন্ন বৃদ্ধির ফলে লাখ লাখ তরুণ প্রথমবারের মতো ডিজিটাল সরঞ্জামগুলোতে অ্যাক্সেস পেয়েছে, দেশের আইটি খাতে তা জ্বালানী হিসেবে কাজ করেছে।