১০:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রংপুরের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে একটি মালবাহী ট্রেনের বগি লাইনচ্যুতির ঘটনায় রংপুরের সঙ্গে উত্তরাঞ্চলে রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে পার্বতীপুর-রংপুর রেলপথের গুলপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম থেকে গম ভর্তি ৩১টি বগি নিয়ে পার্বতীপুরে আসা মালবাহী ট্রেনটি রংপুরে যাচ্ছিলো। আজ সকাল পৌনে ৮টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ইঞ্জিনের পেছনের বগি লাইনচ্যুত হয়।

এ ঘটনার পর থেকে পার্বতীপুরের সঙ্গে রংপুরের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় বোনারপাড়াগামী দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস পার্বতীপুরে, বুড়িমারী থেকে ছেড়ে আসা বুড়িমারী মেইল ট্রেন খোলাহাটি ও কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটি আটকা পড়ে। ঘটনার পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একটি টুল ভ্যান এসে ট্রেনটি উদ্ধার করতে কাজ শুরু করে।

ট্রেনের লোকোমাস্টার (চালক) আব্দুস সাফী বলেন, ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর ট্রেনের গতি কমে গেলে লাইনচ্যুতির বিষয়টি নজরে আসে। মূলত ঘটনাস্থলের লাইন গোলাই (অর্ধচাঁদ আকৃতির) হওয়ায় এবং লাইনের স্লিপার পরিবর্তনের কাজ চলমান থাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্টেশন মাস্টার রেজাউল করিম বলেন, দুর্ঘটনার পর পরই উদ্ধার কাজ শুরু করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে উদ্ধারকাজ সম্পন্ন হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হবে।

ট্যাগ:

রংপুরের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশ: ০২:৩৫:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে একটি মালবাহী ট্রেনের বগি লাইনচ্যুতির ঘটনায় রংপুরের সঙ্গে উত্তরাঞ্চলে রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে পার্বতীপুর-রংপুর রেলপথের গুলপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম থেকে গম ভর্তি ৩১টি বগি নিয়ে পার্বতীপুরে আসা মালবাহী ট্রেনটি রংপুরে যাচ্ছিলো। আজ সকাল পৌনে ৮টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ইঞ্জিনের পেছনের বগি লাইনচ্যুত হয়।

এ ঘটনার পর থেকে পার্বতীপুরের সঙ্গে রংপুরের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় বোনারপাড়াগামী দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস পার্বতীপুরে, বুড়িমারী থেকে ছেড়ে আসা বুড়িমারী মেইল ট্রেন খোলাহাটি ও কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটি আটকা পড়ে। ঘটনার পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একটি টুল ভ্যান এসে ট্রেনটি উদ্ধার করতে কাজ শুরু করে।

ট্রেনের লোকোমাস্টার (চালক) আব্দুস সাফী বলেন, ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর ট্রেনের গতি কমে গেলে লাইনচ্যুতির বিষয়টি নজরে আসে। মূলত ঘটনাস্থলের লাইন গোলাই (অর্ধচাঁদ আকৃতির) হওয়ায় এবং লাইনের স্লিপার পরিবর্তনের কাজ চলমান থাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্টেশন মাস্টার রেজাউল করিম বলেন, দুর্ঘটনার পর পরই উদ্ধার কাজ শুরু করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে উদ্ধারকাজ সম্পন্ন হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হবে।