১১:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে নিষিদ্ধ হাসারাঙ্গা

শ্রীলঙ্কার টি-২০ অধিনায়ক ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকে আচরণবিধি ভঙ্গ করায় দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি। বাংলাদেশের বিপক্ষে ৪ মার্চ শুরু হওয়া টি-২০ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে খেলতে পারবেন না তিনি।

তার আচরণবিধি ভঙ্গের ঘটনাটি ঘটেছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজর শেষ ম্যাচে। হাসারাঙ্গা আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। যে কারণে তাকে ম্যাচ ফি’র ৫০ শতাংশ জরিমানাও করা হয়েছে।

এছাড়া পাঁচটি ডি মেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন তিনি। যার অর্থ একটি টেস্ট অথবা দুটি ওয়ানডে বা দুটি টি-২০ খেলতে পারবেন না তিনি। যেহেতু বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ আগে, লেগ স্পিন অলরাউন্ডার হাসারাঙ্গা তাই বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের প্রথম দুটি মিস করবেন।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে শেষ ওভারের শেষ তিন বলে জয়ের জন্য ১১ রান দরকার ছিল শ্রীলঙ্কার। ওই সময় ওফাদার মোমান্দ ক্রিজে থাকা লঙ্কান ব্যাটার কামিন্দু মেন্ডিসকে একটি ফুলটস বল করেন। লঙ্কানদের পক্ষ থেকে উচ্চতাজনিত কারণে বলটি নো দাবি করা হয়। কিন্তু আম্পায়ার লিন্ডন হ্যানিবল নো বল দেননি। ম্যাচটি শ্রীলঙ্কা ৩ রানে হারে।

বিষয়টি নিয়ে হাসারাঙ্গা কড়া ভাষায় বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এমন ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। হানিবলের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আম্পায়ারিং করার যোগ্যতা নেই। তিনি আম্পায়ালিং না করে অন্য কিছু করলে ভালো করতেন। বলটি যদি ফিফটি-ফিফটি হতো তাহলে কোন কথা ছিল না। কিন্তু এটা অনেক ওপরে ছিল। আরেকটু ওপরে থাকলে বল ব্যাটারের মাথায় লাগতো। এটা নো বল না হলে কোনটা নো বল!’

হাসারাঙ্গার মন্তব্যের প্রেক্ষিতে আইসিসি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, হাসারাঙ্গা আইসিসির আচরণবিধির ২.১৩ ধারা ভঙ্গ কর করেছেন। যেখানে ম্যাচ অফিসিয়ালের প্রতি অনাস্থা জানানো বা তাকে অবজ্ঞা করা বা ব্যক্তিগত আক্রমণ করার কথা উল্লেখ আছে।

ট্যাগ:

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে নিষিদ্ধ হাসারাঙ্গা

প্রকাশ: ০৭:০৮:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শ্রীলঙ্কার টি-২০ অধিনায়ক ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকে আচরণবিধি ভঙ্গ করায় দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি। বাংলাদেশের বিপক্ষে ৪ মার্চ শুরু হওয়া টি-২০ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে খেলতে পারবেন না তিনি।

তার আচরণবিধি ভঙ্গের ঘটনাটি ঘটেছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজর শেষ ম্যাচে। হাসারাঙ্গা আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। যে কারণে তাকে ম্যাচ ফি’র ৫০ শতাংশ জরিমানাও করা হয়েছে।

এছাড়া পাঁচটি ডি মেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন তিনি। যার অর্থ একটি টেস্ট অথবা দুটি ওয়ানডে বা দুটি টি-২০ খেলতে পারবেন না তিনি। যেহেতু বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ আগে, লেগ স্পিন অলরাউন্ডার হাসারাঙ্গা তাই বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের প্রথম দুটি মিস করবেন।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে শেষ ওভারের শেষ তিন বলে জয়ের জন্য ১১ রান দরকার ছিল শ্রীলঙ্কার। ওই সময় ওফাদার মোমান্দ ক্রিজে থাকা লঙ্কান ব্যাটার কামিন্দু মেন্ডিসকে একটি ফুলটস বল করেন। লঙ্কানদের পক্ষ থেকে উচ্চতাজনিত কারণে বলটি নো দাবি করা হয়। কিন্তু আম্পায়ার লিন্ডন হ্যানিবল নো বল দেননি। ম্যাচটি শ্রীলঙ্কা ৩ রানে হারে।

বিষয়টি নিয়ে হাসারাঙ্গা কড়া ভাষায় বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এমন ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। হানিবলের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আম্পায়ারিং করার যোগ্যতা নেই। তিনি আম্পায়ালিং না করে অন্য কিছু করলে ভালো করতেন। বলটি যদি ফিফটি-ফিফটি হতো তাহলে কোন কথা ছিল না। কিন্তু এটা অনেক ওপরে ছিল। আরেকটু ওপরে থাকলে বল ব্যাটারের মাথায় লাগতো। এটা নো বল না হলে কোনটা নো বল!’

হাসারাঙ্গার মন্তব্যের প্রেক্ষিতে আইসিসি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, হাসারাঙ্গা আইসিসির আচরণবিধির ২.১৩ ধারা ভঙ্গ কর করেছেন। যেখানে ম্যাচ অফিসিয়ালের প্রতি অনাস্থা জানানো বা তাকে অবজ্ঞা করা বা ব্যক্তিগত আক্রমণ করার কথা উল্লেখ আছে।